ঢাকাবৃহস্পতিবার , ৬ জানুয়ারি ২০২২
  • অন্যান্য
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ভোলায় পঞ্চম ধাপের ইউপি নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে, ৩টি-তে স্বতন্ত্র এবং ৯টি-তে নৌকা বিজয়ী

নিউজ রুম
জানুয়ারি ৬, ২০২২ ১০:৪৩ পূর্বাহ্ণ । ১৩৭ জন
Link Copied!
সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ভোলায় পঞ্চম ধাপের ইউপি নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া আর বিচ্ছিন্ন সংর্ষের ঘটনার মধ্য দিয়ে ।

বুধবার (৫ জানুয়ারী) সকাল ৮টায় ভোট শুরু হয়ে তা চলে বিকাল ৪টা পর্যন্ত।

ভোট কেন্দ্রগুলোতে নারী-পুরুষের উপচে পড়া ভীড় লক্ষ্য করা গেছে। তারা সতস্ফুর্তভাবে তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে দেখা গেছে। তবে সকালের দিকে ভোট কেন্দ্রে পরিবেশ শান্ত থাকলেও সময় বাড়ার সাথে সাথে উত্তপ্ত হতে থাকে পরিবেশ।

আধিপত্ত বিস্তার করা নিয়ে সদর উপজেলার আলীনগর, পূর্ব ইলিশা, বাপ্তা, রাজাপুর, চরসামাইয়া, ভেলুমিয়াসহ বিভিন্ন এলাকায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে অন্তত ৩০ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এদের মধ্যে ১০জন ভোলার ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

ভোট গণনা শেষে বেসরকারীভাবে ভোলার ১২ ইউপির মধ্যে ৩টি-তে স্বতন্ত্র এবং ৯টি-তে আওয়ামীলীগ মনোনিত নৌকা প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন। জানা গেছে, সারাদেশের ন্যায় ভোলা-তেও পঞ্চম ধাপের ইউপি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সকাল ৮টায় ভোট আরম্ভ হওয়ার আগেই তারা লাইনে লাইনে দাড়িয়ে যান ভোট প্রদান করার জন্য। সুষ্ঠ পরিবেশের মধ্য দিয়ে-ই সকাল ৮টায় ভোট শুরু হয়। ভোটাররাও তাদের পছন্দের প্রার্থীদের ভোট প্রদান করেন। সকালের দিকে সুষ্ঠ পরিবেশে ভোট দিতে পেরে তারাও সন্তোস প্রকাশ করেন।

তবে সকাল গড়িয়ে যখন দুপুর হয় তার পর থেকেই উত্তপ্ত হতে থাকে ভোলার নির্বাচনী মাঠ। এ সময় আধিপত্ত বিস্তার করা নিয়ে চেয়ারম্যান প্রার্থী, সাধারণ সদস্য এবং সংরক্ষিত মহিলা সদস্যদের কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। দুপুরের দিকে বাপ্তা ইউপির চরনোয়াবাদ এলাকায় আধিপত্য বিস্তার করা নিয়ে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। একই সময়ে ভেলুমিয়াতে বিচ্ছিন্ন সংঘর্ষ বাধে। বিকেলের দিকে পূর্ব ইলিশাতেও আধিপত্য বিস্তার করা নিয়ে সংঘর্ষ হয়। এ সময় দুই গ্রুপের মধ্যে চলমান সংঘর্ষ আধাঘণ্টা ব্যাপী স্থায়ী হয়। এসময় এক গ্রুপ অপর গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া চলতে থাকে। ইট-পাটকেল নিক্ষেপ, লাঠি-সোটা এবং দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মহড়া দিতেও দেখা গেছে। এছাড়া চরসামাইয়া এবং রাজাপুরেও আধিপত্য বিস্তার করা নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। তবে বিকেলের দিকে ভোলার আলীনগর ইউনিয়নে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট এর ভ্রাম্যমান টিমের সঙ্গেও সংঘর্ষ বাধে।

এসময় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কয়েকরাউন্ড ফাকা গুলি ছোড়ার খবর পাওয়া গেছে। দুপুরের পর থেকে বিকেল পর্যন্ত থেমে থেমে বিভিন্ন জায়গায় সংঘর্ষের ঘটনায় অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে ১০জন ভোলার ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। অন্যদিকে ভোটের মাঠের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ছিল তৎপর। তারা ভোটের মাঠে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা কালে ১০ জনকে আটক করেছে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

বিভিন্ন অনিয়ম আর অপরাধের কারণে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটগণ আটককৃতদের মধ্য থেকে ১ জনকে ১৫ দিনের কারাদন্ড এবং ৯ জনকে ৬৬ হাজার টাকার জরিমানায় ছেড়ে দেন। এ ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার মধ্য দিয়ে বিকাল ৪টায় শেষ হয় ভোট।

গণনা শেষে ভোলার ১২টি ইউপি’র মধ্যে বেসরকারীভাবে ৩টি-তে স্বতন্ত্র এবং ৯টি-তে আওয়ামীলীগ মনোনিত নৌকা প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন। বিজয়ী প্রার্থীরা হলেন ১নং রাজাপুরে স্বতন্ত্র প্রার্থী রেজাউল হক মিঠু চৌধুরী (মোটরসাইকেল), ২নং পূর্ব ইলিশায় স্বতন্ত্র প্রার্থী আনোয়ার হোসেন ছোটন (আনারস), ৩নং পশ্চিম ইলিশায় জহিরুল ইসলাম (নৌকা), ৫নং বাপ্তায় ইয়ানুর রহামান বিপ্লব মোল্লা (নৌকা), ৬নং ধনিয়ায় এমদাদ হোসেন কবির (নৌকা), ৭নং শিবপুরে জসিম উদ্দিন (নৌকা), ৮নং আলীনগরে বশির আহমেদ (নৌকা), ৯নং চরসামাইয়ায় মহিউদ্দিন মাতাব্বর (নৌকা), ১০ নং ভেলুমিয়ায় আব্দুস সালাম মাষ্টার (নৌকা), ১১নং ভেদুরিয়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থী মোস্তফা কামাল (আনারস), ১২নং উত্তর দিঘলদীতে লিয়াকত হোসেন মনসুর (নৌকা), ১৩নং দক্ষিণ দিঘলদীতে ইফতারুল হাসান স্বপন (নৌকা) প্রতীকে নির্বাচিত হন।

%d bloggers like this: