ঢাকামঙ্গলবার , ২৬ এপ্রিল ২০২২
  • অন্যান্য
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ভোলায় তামাক কর ও মূল্য বৃদ্ধি বিষয়ক ওরিয়েন্টেশন সভা অনুষ্ঠিত

নিউজ রুম
এপ্রিল ২৬, ২০২২ ২:৪৭ অপরাহ্ণ । ৫৭ জন
Link Copied!
সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আশিকুর রহমান শান্ত,ভোলা প্রতিনিধি

ভোলায় তামাক কর ও মূল্য বৃদ্ধি বিষয়ক ওরিয়েন্টেশন সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ভোলার তরুণরা নীতি-নির্ধারকদের কাছে তামাক কর ও মূল্য বৃদ্ধির জোর দাবি জানালো , গ্লোবাল অ্যাডাল্ট টোব্যাকো সার্ভে (গ্যাটস) ২০১৭ অনুযায়ী, বাংলাদেশে ১৫-২৪ বছর বয়সি প্রায় ১০ ভাগ তরুণ ধূমপানে আসক্ত। আর এই আসক্তির ফলে তারা বিভিন্ন স্বাস্থ্য সমস্যায় ভুগছে এবং তাদের কারণে অধূমপায়ীরাও পরোক্ষভাবে স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়ছে। আর তাই ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্যের স্বাস্থ্যক্ষতির হাত থেকে জনসাধারণ ও তরুণ প্রজন্মকে বাঁচাতে তামাকের কর ও মূল্য বৃদ্ধি করার কোন বিকল্প নেই।

রবিবার (২৬ এপ্রিল)বে-সরকারি উন্নয়ন সংস্থা ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন অব দ্য রুরাল পূয়র (ডরপ) এর ভোলা কার্যালয়ে তামাক কর ও মূল্য বৃদ্ধিতে যুব সমাজের প্রস্তাবনা শীর্ষক এক মতবিনিময় ও আলোচনা সভায় উপস্থিত তরুণরা এ দাবি করেন।
ডরপ টোব্যাকো কন্ট্রোল প্রজেক্ট এর এ্যাডভোকেসী অফিসার তরুন কান্তি দাশের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী তরুণদের পক্ষ থেকে এনবিআরের প্রতি ২০২২-২০২৩ অর্থবছরে ধোঁয়াবিহীন ও ধোঁয়াযুক্ত তামাক পণ্যের ক্ষেত্রে নিম্মলিখিত কর প্রস্তাবগুলো উত্থাপন করা হয়।
ধোঁয়াযুক্ত তামাক পণ্য সিগারেটের ক্ষেত্রে প্রস্তাব- প্রতি ১০ শলাকা সিগারেটের নিম্ন স্তরে খুচরা মূল্য ৫০ টাকা নির্ধারণ করে ৩২.৫০ টাকা সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা; মধ্যম স্তরে খুচরা মূল্য ৭৫ টাকা নির্ধারণ করে ৪৮.৭৫ টাকা সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা; উচ্চ স্তরে খুচরা মূল্য ১২০ টাকা নির্ধারণ করে ৭৮.০০ টাকা সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্ক এবং প্রিমিয়াম স্তরে ১৫০ টাকা খুচরা মূল্য নির্ধারণ করে ৯৭.৫০ টাকা সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা।
ফিল্টারবিহীন ২৫ শলাকা বিড়ির ক্ষেত্রে খুচরা মূল্য ২৫ টাকা নির্ধারণ করে ১১.২৫ টাকা সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা; এবং ফিল্টারযুক্ত ২০ শলাকা বিড়ির খুচরা মূল্য ২০ টাকা নির্ধারণ করে ৯.০০ টাকা সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা। এরফলে উভয় ক্ষেত্রে সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্কের হার হবে চূড়ান্ত খুচরা মূল্যের ৪৫ শতাংশ।
ধোঁয়াবিহীন তামাক পণ্যের কর প্রস্তাব- প্রতি ১০ গ্রাম জর্দার খুচরা মূল্য ৪৫ টাকা নির্ধারণ করে ২৭.০০ টাকা সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা; এবং প্রতি ১০ গ্রাম গুলের খুচরা মূল্য ২৫ টাকা নির্ধারণ করে ১৫.০০ টাকা সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা। এরফলে উভয় ক্ষেত্রে সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্কের হার হবে চূড়ান্ত খুচরা মূল্যের ৬০ শতাংশ।
উপরি উক্ত প্রস্তাবনায় সিগারেট ও বিড়ির খুচরা মূল্যের উপর বিদ্যমান ১% সারচার্জ ও ১৫% মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) বহাল রাখার কথাও উল্লেখ করা হয়।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি অধ্যাপক মো: রুহল আমীন জাহাঙ্গীর বলেন, উল্লেখিত কর প্রস্তাবসহ একটি সহজ এবং কার্যকর তামাক কর নীতিমালা প্রণয়ন ও বাস্তবায়িত হলে সরকারের রাজস্ব আয় প্রায় ৯ হাজার কোটি টাকা বৃদ্ধি পাবে এবং ধূমপানকারীর সংখ্যা কমে আসবে।
তিনি আরো বলেন, আজকের যুব সমাজ তাদের ইচ্ছাশক্তির বলে নানা ধরনের ধরনের ইতিবাচক কাজ করে সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় পরিমণ্ডলে অবদান রাখছে। আমি আশা করি আজকের আলোচনা সভায় উপস্থিত যুবরা তামাক বিরোধী আন্দোলনকে আরো বেগবান করবে এবং তামাক কর ও মূল্য বৃদ্ধির বিভিন্ন কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করে জাতীয় নীতি-নির্ধারকদের কাছে তাদের দাবি সমূহ তুলে ধরবে।”
সভাপতি মো: আবু তাহের বলেন,উল্লেখিত কর প্রস্তাবসহ সকল ধোঁয়াবিহীন তামাকপণ্য উৎপাদনকারীকে করজালের আওতায় নিয়ে আসা গেলে এবং সকল তামাকপণ্য অভিন্ন পরিমাণে (শলাকা সংখ্যা এবং ওজন) প্যাকেট/কৌটায় বাজারজাত করা সম্ভব হলে জনস্বাস্থ্যে বিরাট একটি ইতিবাচক পরিবর্তন দেখা যাবে। তামাক জনিক রোগে অক্রান্ত হওয়া রোগী এবং নতুন ধূমপায়ীর সংখ্যাও কমে আসবে।
ডরপ আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী ইয়ুথ ফোরামের সদস্যরা তামাক কর ও মূল্য বৃদ্ধি বিষয়ে অবদান রাখতে বিভিন্ন জনসচেতনতামূলক এবং অন্তর্ভুক্তিমূলক কার্যক্রম করার শপথ গ্রহণ করে এবং তাদের দাবি জাতীয় নীতি-নির্ধারণী পর্যায়ে পৌঁছানোর অঙ্গিকার ব্যক্ত করে।
উল্লেখ্য, অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন যুব কমিটির চ্যাম্পিয়ন সদস্য নাঈম সামীর, মো: ইয়সিন আরাফত,,আশিকুর রহমান শান্ত, আনোয়ার শাকিলা, মেঘলা, সৌরভ, প্রদীপ, লাবনী,মো: আরিফ, অমিতাভ রাজন, হেলাল উদ্দিন, মো: ইসমাইল, ,জুয়েল, রাকিব এবং নাদিম।

%d bloggers like this: