ঢাকাসোমবার , ১২ সেপ্টেম্বর ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ছাত্রীদের যৌন হয়রানির দায়ে অভিযুক্ত শিক্ষককে ভোলায় বদলি করায় ভোলা পলিটেকনিক্যাল দুই শতাধিক ছাত্র-ছাত্রীদের বিক্ষোভ মিছিল

নিউজ রুম
সেপ্টেম্বর ১২, ২০২২ ১০:৫৩ অপরাহ্ণ । ৮৯ জন
Link Copied!
সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আমির হামজা।।

রাঙামাটির কাপ্তাইয়ে অবস্থিত বাংলাদেশ-সুইডেন পলিটেকনিক্যাল ইনস্টিটিউটের আলোচিত-সমালোচিত শিক্ষক মো. এজাবুর আলমকে ভোলা পলিটেকনিক্যালে বদলি করায় বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

কাপ্তাইয়ে ছাত্রীদের যৌন হয়রানির দায়ে অভিযুক্ত শিক্ষককে ভোলায় বদলির ঘোষণা করার পরই ভোলা পলিটেকনিক্যাল কলেজ ছাত্রলীগ সহ কলেজের দুই শতাধিক ছাত্র-ছাত্রীরা এজাবুর আলম এর আস্তানা এই ভোলাতে হবে না, এজাবুরের চামড়া তুলে নেব আমরা স্লোগান দিয়ে দীর্ঘ সময় ব্যাপী বিক্ষোভ মিছিল করে।

আজ সোমবার (১২ তারিখ) দুপুর ১ টার সময় কলেজের পরীক্ষা শেষে ভোলা পলিটেকনিক এর সামনে দুই শতাধিক ছাত্র-ছাত্রী দীর্ঘ সময় ব্যাপী এই বিক্ষোভ মিছিল করে।

বিক্ষোভ মিছিলে ছাত্র-ছাত্রীরা বলে, কাপ্তাইয়ে বাংলাদেশ-সুইডেন পলিটেকনিক্যাল ইনস্টিটিউটের আলোচিত-সমালোচিত শিক্ষক ছাত্রীদের যৌন হয়রানির করা অভিযুক্ত শিক্ষক এজাবুর আলম ভোলা পলিটেকনিক কলেজে শিক্ষক হয়ে আসলে আমাদের কলঙ্কমুক্ত কলেজ কলঙ্কিত হবে। তা ছাড়া আমাদের ভোলা পলিটেকনিক এর ছাত্রীরা নিরাপদে থাকবে তার নিশ্চয়তা দেবে কে। তাই আমরা চাই না যৌন হয়রানির দায়ে অভিযুক্ত শিক্ষক এজাবুর আলম ভোলা পলিটেকনিক্যাল শিক্ষক হয়ে আসুক।

বিক্ষোভ মিছিলটির শেষে ভোলা পলিটেকনিক্যালে কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি ইসমাইল বক্তব্যে রেখে বলেন, আমাদের ভোলা পলিটেকনিক্যাল কলঙ্কমুক্ত। অতীতে আমাদের পলিটেকনিক্যালে এমন কোন নজিরবিহীন ঘটনা ঘটেনায় জেটা সবার মুখে মুখে। এই কুলাঙ্গার এজাবুর সুইডেন পলিটেকনিক্যাল ছাত্রীদের যৌন হয়রানির যে কর্মকাণ্ড ঘটিয়েছে তার দায়ভার আমাদের ভোলা পলিটেকনিক্যাল নিবে না ও অত্র কলেজের ছাত্র-ছাত্রীরাও নিবেনা। তার প্রতিবাদে আজকের যে বিক্ষোভ মিছিল করা হয়েছে, এ বিক্ষোভের পরেও ভোলা পলিটেকনিক্যালে যদি সে আসে তাকে আমার প্রতিহত করব কঠিনভাবে, প্রয়োজনের লাঠি দিয়েও আমরা প্রতিহত করব।

বিক্ষোভ মিছিলটির শেষে আব্দুল জব্বার কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি আরিফুল ইসলাম বক্তব্যে রেখে বলেন, আপনারা জানেন যে কুলাঙ্গার শিক্ষক এজাবুর আলম ভোলা পলিটেকনিক্যালে বদলিজনিত জয়েন করতে যাচ্ছেন, ওনার বিরুদ্ধে সাবেক পলিটেকনিক্যালের যে সমস্ত কুকর্মের রিপোর্ট আছে আপনারা তা সবাই অবগত আছেন। ভোলা পলিটেকনিক্যালে ইনস্টিটিউট আমাদের হৃদয়ের স্পন্দন। তাই ভোলা পলিটেকনিক্যালে কোন কুলাঙ্গার, কোন যারক শিক্ষকের স্থান হবে না। পিতা-মাতার পরেই শিক্ষকের স্থান। রক্ষক যখন ভক্ষক হয় তখনই রক্ষকের বিরুদ্ধে আমাদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। আমি ভোলা পলিটেকনিক্যাল ছাত্রলীগের কাছে আহবান করব যাতে এই কুলাঙ্গার শিক্ষক এই ভোলা পলিটেকনিক্যালের ত্রিসীমানায় কোনদিন পা না রাখতে পারে।

এ বিক্ষোভ মিছিলে উপস্থিত ছিলেন, ভোলা পলিটেকনিক কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি ইসমাইল, আব্দুল জব্বার কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি, আরিফুল ইসলাম, পলিটেকনিক কলেজ ছাত্রলীগের বিপ্লবী সাধারণ সম্পাদক নাইম।
এ-সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, মোঃ আমির হামজা, জিহাদ পালোয়ান, রিদয়, আমজাদ, পারবেজ, আলামিন, নুহান, রাব্বিসহ অত্র কলেজের দুই শতাধিক শিক্ষার্থীরা উপস্তিত ছিলেন।

%d bloggers like this: