ঢাকাবৃহস্পতিবার , ২২ জুন ২০২৩
আজকের সর্বশেষ সবখবর

উদ্যোক্তা হয়ে এগিয়ে যাচ্ছে নারীরা।

নিউজ রুম
জুন ২২, ২০২৩ ২:১৩ অপরাহ্ণ । ৫৭ জন
Link Copied!
সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

মনপুরা প্রতিনিধি, ভোলা বঙ্গ নিউজ।।

নারী সমাজ বরাবরই  অবহেলিত। উচ্চতর ডিগ্রি নিলেও অধিকাংশ নারীর ঠিকানা যেন রান্নাঘর। পুরুষপ্রধান এ সমাজে ঘর থেকে বের হতে হলে বাবা, ভাই কিংবা স্বামীর অনুমতি নিতে হবে, তারপরও আছে কত বাধা-নিষেধ। দীপ্ত পদচারণায় এসব প্রতিবন্ধকতা নারীরা এখন জয় করতে শিখেছেন। এখন নারীরা পড়াশোনা করছেন, চাকরি করছেন- এমনকি স্বাধীন উদ্যোক্তাও হচ্ছেন। দেখা যাচ্ছে, যেসব নারী উদ্যোক্তা হিসেবে কাজ শুরু করছেন।

জানা যায় ভোলার বিছিন্ন দ্বীপ উপজেলা মনপুরায় ইতিপূর্বে সফল নারী উদ্যোক্তা তৈরীতে কাজ করেছে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অধিনে জাতীয়  মহিলা সংস্থা কর্তৃক পরিচালিত “তৃনমুল পর্যায়ে অর্থনৈতিক ক্ষমতায়নে নারী উদ্যোক্তাদের বিকাশ সাধন প্রকল্প”।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায় এখানে ৫ জন প্রশিক্ষক দ্বারা  বিউটিফিকেশন, ক্যাটারিং,ফ্যাশন ডিজাইন, ইন্টেরিয়র ডিজাইন এন্ড ইভেন্ট ম্যানেজম্যান্ট এবং বিজনেস ম্যানেজমেন্ট এন্ড ই-কমার্স এই ০৫ টি ট্রেডে প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকেন।

এই বিষয়ে নারী উদ্যোক্তাদের উদ্ভুদ্ধকরনের জন্য হরেক রকমের উদ্যোগ নিয়েছে তারা।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে তারা জাতীয় মহিলা সংস্থা ভোলা জেলা চেয়ারম্যান সামছুর নাহার সোনিয়া সভাপতিত্বে এবং প্রশিক্ষন কর্মকর্তা মোঃআমজাদ হোসেনের সঞ্চালনায় আয়োজিত কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আল নোমান, বিশেষ অতিথি পল্লি উন্নয়ন কর্মকর্তা মোঃমাহতাব উদ্দিন ভূইয়া সহ উদ্যোক্তা নারীদের উপস্থিতে বাৎসরিক কর্মশালাও তৈরী করেন।

প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত একজন উদ্যোক্তা জান্নাতুল ফেরদৌস ( ৩৭) বলেন  , আমি জাতীয় মহিলা সংস্থা,মনপুরা,ভোলা থেকে প্রশিক্ষন নিয়ে এখন কাপড় সেলাই এর কাজ,নকশিকাঁথা সেলাই,ও পুতি দিয়ে পন্য তৈরি করি এবং বিক্রি করি।

এবং আমার মতো এমন অনেক সুবিধা বঞ্চিত নারীরা এখান থেকে প্রশিক্ষন নিয়ে সফল উদ্যোক্তা হচ্ছেন।

এ সময়ে আলোচনায় বক্তারা বলেন,মনপুরার সামাজিক ব্যবস্থায় নারীরা এখনো পিছিয়ে রয়েছে। ক্ষেত্র বিশেষে নারীরা মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারছেন না। আমরা জাতীয় মহিলা সংস্থা কর্তৃক নারীদের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছি। আমরা চাই নারীরা জাতীয় মহিলা সংস্থা থেকে প্রশিক্ষন নিয়ে প্রশিক্ষিত হয়ে আত্ম-কর্মসংস্থানে নিয়োজিত হতে পারে এবং নিজেকে স্বাবলম্বী করতে পারে। আর এই উদ্দেশ্য নিয়েই আমাদের  এই পথচলা অব্যাহত থাকবে।

তারা আরো বলেন, উদ্যমী নারীর যেমন অনুসারী তৈরি হয় তেমনি তার সিদ্ধান্ত সমাজে অংশগ্রহণ রত নারীদের পক্ষে গিয়ে তাদের অর্থনৈতিক ক্ষমতা বাস্তবায়নে ভূমিকা রাখে।

%d bloggers like this: