ঢাকাশনিবার , ২০ জানুয়ারি ২০২৪
  • অন্যান্য
আজকের সর্বশেষ সবখবর

অসহায় ও গরীব মানুষের সেবা করতে দৌলতখান উপজেলার চেয়ারম্যান প্রার্থী হবেন লিটন

নিউজ রুম
জানুয়ারি ২০, ২০২৪ ১২:১০ পূর্বাহ্ণ । ১৩ জন
Link Copied!
সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নিজস্ব প্রতিবেদক , ভোলা বঙ্গ নিউজ।।

অসহায় ও গরীব মানুষের সুখে-দু:খে সময় পাশে থাকা একান্ত আপনজন মো: ইয়াছিন লিটন এবার আসন্ন দৌলতখান উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হবেন। সমাজের সকল মানুষের পাশে থেকে শত ভাগ নাগরিক সেবা নিশ্চিত করতে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী হবেন তিনি। আর এরই মধ্যে তিনি ছুঁটে যাচ্ছেন উপজেলার সকল মানুষের কাছে। আর সব মানুষই তাকে হাঁসি মূখে গ্রহণ করছেন।

ইয়াছিন লিটন বিপুল ভোটে ভোলার দৌলতখান উপজেলার উত্তর জয়নগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নির্বাচতিন হন ২০১১ ও ২০১৬ সালের দিকে। তিনি ওই ইউনিয়নের ঐতিহ্যবাহি আব্দুল আজিজ ব্যাপারী বাড়ির বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: রফিকুল ইসলাম ব্যাপারীর ছেলে। তার দাদা মো: মোফাজ্জল হোসেন মাস্টারও ওই ইউনিয়নের একাধিকবার চেয়ারম্যান ছিলেন। এছাড়াও ইয়াছিন লিটন উত্তর জয়নগর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে দ্বায়ীত্ব পালন করছেন।

এলাকাবাসী জানান, ইয়াসিন লিটন দুই মেয়াদে উত্তর জয়নগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান থাকাকালিন সময় ওই ইউনিয়নের অসহায় ও গরীবসহ সকল মানুষের পাশে থেকে সেবা দিয়েছেন। আর তার ভালো মন-মানসিকতার জন্যই তিনি ওই ইউনিয়ন বাসীর কাছে জনপ্রিয় ও গরীবের চেয়ারম্যান নামে পরিচিত ছিলেন। অন্যদিকে ইউপি চেয়ারম্যান থাকাকারীন সময় তার সুনাম চারদিকে ছড়িয়ে পড়ায় দৌলতখান উপজেলার বাসী তাকে ভালোবেসে মন থেকে গ্রহণ করেছেন। তাই এবার যদি ইয়াছিন লিটন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হন তাহলে দৌলতখান উপজেলা বাসী তাকে বিপুল ভোটে জয়যুক্ত করবেন বলে জানান তারা।

ইয়াসিন লিটন জানান, তিনি সব সময় অসহায় ও গরীব থেকে শুরু করে সকল মানুষের পাশে থেকেছেন আর সব সময়ই থাকবেন। ইউপি চেয়ারম্যান থাকা অবস্থায় তিনি সকল মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে তাদের খোঁজ-খবর রেখেছেন। এবং তার সামর্থ অনুযায়ী সকলকে সহযোগী করেছেন এবং সেই দ্বারা অব্যাহত রেখেছেন আজও।

তিনি আরো জানান, আমি যদি উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হই তাহলে দৌলতখান উপজেলাকে একটি আধুনিক ও মডেল উপজেলা হিসেবে রুপান্তরিত করবো। অসহায় ও গরীব মানুষকে সব ধরণের সুযোগ-সুবিধা দিয়ে তাদের দু:খ-কষ্ট দূর করবো। এছাড়াও বেকার যুবক-যুবতীদের কর্মসংস্থানের চেষ্টা করবেন।

%d bloggers like this: